রবিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৩, ০২:১৯ পূর্বাহ্ন

প্রতিনিধি নিয়োগ-
ঢাকা সহ সারাদেশের প্রতিটি জেলা, উপজেলা, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে সংবাদদাতা নিয়োগ করা হবে। আগ্রহী প্রার্থীরা dailyalochitosokal@gmail.com এ সিভি প্রেরণ করার জন্য অনুরোধ করছি।
শিরোনাম:
গুম হওয়া নারীকে জীবিত উদ্ধার করল রংপুর পিবিআই, হত্যার দায় হতে রক্ষা পেল নিরীহ স্বামী

গুম হওয়া নারীকে জীবিত উদ্ধার করল রংপুর পিবিআই, হত্যার দায় হতে রক্ষা পেল নিরীহ স্বামী

এম হামিদুর রহমান লিমন, রংপুর ব্যুরো প্রধানঃ

গত ১৭ ই আগষ্ট ২০২১ খ্রিঃ তারিখে মোছাঃ হানিফা বেগম, স্বামী- মৃত আমিনুর ইসলাম, সাং- পাগলাপীর মুন্সিপাড়া (মুলা পাড়া), থানা- কোতয়ালী সদর, জেলা-রংপুর বিজ্ঞ আদালতে হাজির হয়ে তার কন্যা মোছাঃ রিক্তা বেগম(২৪),স্বামী-মোঃ মানিক মিয়া, সাং-কুঠিয়ালপাড়া, থানা- হাজীরহাট, আরপিএমপি, জেলা- রংপুর মহানগর”কে তার জামাতা মানিক মিয়া খুনের উদ্দেশ্যে অপহরন করে গুম করেছেন মর্মে অভিযোগ করেন। বিজ্ঞ আদালতের নির্দেশে হাজীর হাট থানার মামলা নং-০৮,তারিখ-১৭/০৮/২০২১ খ্রিঃ ধারা- ৩৬৪ পেনাল কোড রুজু পূর্বক তদন্তভার পিবিআই, রংপুরের উপর অর্পণ করে। এসআই(নিঃ)/মোঃ শফিউল আলম মামলাটির তদন্তভার গ্রহণ করেন। পিবিআই এর মাননীয় ডিআইজি জনাব বনজ কুমার মজুমদার বিপিএম (বার), পিপিএম মহোদয় এর সার্বিক নির্দেশনায় পুলিশ সুপার, পিবিআই, রংপুর মহোদয় এর তত্ত্বাবধায়নে পিবিআই, রংপুরের একটি চৌকস টিম, সোর্স ও তথ্য প্রযুক্তির সর্বোত্তম ব্যবহার নিশ্চিত করে বাদীনির কথিত গুম হয়ে যাওয়া কন্যাকে গত ০৩ ই সেপ্টেম্বর ২০২১ খ্রিঃ গাজীপুর জেলার কালিয়াকৈর থানাধীন পল্লী বিদ্যুৎ এলাকার জনৈক সুমন ব্যাপারী এর বাসা হতে উদ্ধার করে।

ভিকটিমকে প্রলোভন দেখিয়ে, ফাদেঁ ফেলে, মিথ্যা পরিচয়ে বাদীনির কন্যাকে ভুল বুঝিয়ে অপহরন, ধর্ষন ও ২৪ দিন পাবনা ও গাজীপুর জেলার বিভিন্ন জায়গায় ভিকটিমকে জোর পূর্বক আটকে রাখায় তদন্তে প্রাপ্ত আসামী মোঃ মিঠু মোল্লা(২৬), পিতা- মোঃ নুরুল ইসলাম @ নুর ইসলাম , সাং- কুয়াবাসী (ফৈলজানা), ডাকঘর- কুয়াবাসী, থানা- চাটমোহর, জেলা- পাবনা’কে গ্রেফতার করে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। ভিকটিম রিক্তা বেগম বিজ্ঞ আদালতে The Code of Criminal Procedure, 1898 এর ১৬৪ ধারায় তাকে ভুল বুঝিয়ে, প্রলোভন দেখিয়ে আসামী মিঠু মোল্লা অপহরণ করে পাবনা ও গাজীপুরে নিয়ে গিয়ে জোর পূর্বক আটকে রেখে ধর্ষন করেছে মর্মে জবানবন্দী প্রদান করেছেন।

পিবিআই রংপুরের পুলিশ সুপার এবিএম জাকির হোসেন বলেন ভিকটিমের সুরক্ষা ও ন্যায় বিচারের স্বার্থে সর্বোচ্চ আন্তরিকতা, নিষ্ঠা এবং গুরুত্ত্বের সাথে মামলাটি তদন্ত করা হচ্ছে। মামলাটির তদন্ত অব্যাহত আছে।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি
Design & Developed BY SheraWeb.Com