বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৬:১১ অপরাহ্ন

প্রতিনিধি নিয়োগ-
ঢাকা সহ সারাদেশের প্রতিটি জেলা, উপজেলা, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে সংবাদদাতা নিয়োগ করা হবে। আগ্রহী প্রার্থীরা dailyalochitosokal@gmail.com এ সিভি প্রেরণ করার জন্য অনুরোধ করছি।
মিরপুরে একযুগ পর দখলকৃত মার্কেট ফিরে পেলেন মালিক মুজিবুর রহমান

মিরপুরে একযুগ পর দখলকৃত মার্কেট ফিরে পেলেন মালিক মুজিবুর রহমান

বাহাউদ্দীন তালুকদার :

রাজধানীর মিরপুরে শাহ্ আলী গার্লস স্কুল এন্ড কলেজ শপিং কমপ্লেক্স মার্কেটের ৬৫% শেয়ার হিসেবে ৫৬৫টি দোকান এলাকার কিছু সন্ত্রাসী বাহিনী দখল করে রেখেছিলেন। একযুগ পর সেই মার্কেট ফিরে পেলেন মূল মালিক মুজিবুর রহমান।

শাহ্ আলী থানায় সাধারণ ডায়েরি, অভিযোগ ও বিজ্ঞ মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে দখলকৃতদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়। দখলকৃতরা শুক্রবার দুপুরে মালিক সমিতি ও ব্যবসায়ী সমিতি কর্তৃপক্ষ মার্কেটের অফিস খুলে কোন ঝামেলা ছাড়াই মূল মালিক মুজিবুর রহমান’কে অফিস ও মার্কেট বুঝিয়ে দেন।

জানা যায়, একজন সৎ নির্ভীক পরোপকারী সকলের কল্যাণকারী ও নির্মাণ শিল্পের অন্যতম এক শিল্পপতির নাম মোঃ মজিবুর রহমান। তিনি তার স্বীয় উদ্যোগ ত্যাগ স্বীকার ও কল্যাণকর মানসিকতা নিয়ে হযরত শাহ আলী গার্লস স্কুল এন্ড কলেজ এর সাথে চুক্তিপূর্বক ২০১০ সালে ডেভলপার হিসেবে হযরত শাহ আলী গার্লস কলেজ অর্থনৈতিকভাবে একটি শক্তিশালী ভিত্তির উপর প্রতিষ্ঠিত। শিক্ষা আমাদের সমাজে সবার অধিকার হিসেবে আমরা জানি তাই গরিব, নিম্নবিত্ত, মধ্যবিত্ত সকলের জন্য এটি অত্যন্ত সহজ প্রাপ্ত হওয়া উচিত আর তাই শাহ আলী গার্লস কলেজ স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান হিসেবে অতি সল্প খরচে মিরপুর-১ এলাকার ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য শিক্ষা প্রদান করছে অতি অল্প খরচে এই মার্কেটের আয়ে কল্যাণে সম্ভব হচ্ছে। শিক্ষানুরাগী মোঃ মজিবুর রহমান হযরত শাহ আলী কলেজ মার্কেট ডেভলপার হিসেবে নির্মাণের পূর্বেই এই কলেজের অত্যন্ত নাজুক অবস্থা থেকে কলেজকে উত্তরণের জন্য এর একটি টিনশেড ভবন নির্মাণ করে দেন। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমোদনের জন্য ছয় তলা ফাউন্ডেশন বিশিষ্ট বিল্ডিং এর দোতালা পর্যায়ে নির্মাণ করে দেন। এবং এর জন্য কলেজ থেকে কোনো অর্থ গ্রহণ করেননি। কলেজ যাতে এটি মার্কেট করতে পারে এজন্য কলেজের ১.৬৭ একর জমির বিগত ৩৮ বছরের খাজনা নিজে প্রদান করেন। কলেজের নিকট থেকে কোন অর্থ গ্রহণ ছাড়াই কলেজের জমিতে মার্কেট নির্মাণের জন্য সরকারি দপ্তরের যাবতীয় খরচ, কনভারসন ফি এবং অন্যান্য যাবতীয় খরচ নিজে থেকে ব্যয় করে মার্কেট নির্মাণের পথে অগ্রসর হন।বর্তমান হযরত শাহ আলী গার্লস কলেজ শপিং কমপ্লেক্স নির্মাণের পূর্বেই কলেজটি অর্থনৈতিকভাবে সংকটে পড়ে ১১৬টি দোকান পূর্বেই বিক্রি করে যা মোঃ মজিবুর রহমান মার্কেট নির্মাণ করার পরে উক্ত দোকান মালিকদের দোকান হস্তান্তর করে। এহেন ত্যাগী নিঃস্বার্থপর শিক্ষানুরাগী ও পরোপকারী একজন স্বনামধন্য ডেভলপার মুজিবুর রহমান আজ মিরপুর-১ শাহ আলী কলেজের মার্কেটের ব্যবসায়ী মালিক সমিতির কতিপয় নেতৃবৃন্দদের রোষানলে পড়েছিলো। তথাকথিত ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ পরিচয় ধারীরা তার বিরুদ্ধে নানান ধরনের মিথ্যা অভিযোগ, উদ্ভব ও বানোয়াট গল্প তৈরি করে বিভিন্ন অনলাইন পত্রিকা, ডিজিটাল মিডিয়া ও অন্যান্য বিভিন্ন প্রিন্ট মিডিয়াকে নানান ধরনের কুরুচিপূর্ণ ও মিথ্যা সংবাদ পরিবেশনের হীন প্রক্রিয়াতে লিপ্ত যা সর্বসাধারণের কাছে অগ্রহণযোগ্য নিন্দনীয় ও চরম ঘৃনার।

এ বিষয়ে মার্কেট মালিক মুজিবুর রহমান জানান, মিরপুর শাহ্ আলী থানা এলাকায় অবস্থিত শাহ্ আলী গার্লস স্কুল এন্ড কলেজ শপিং কমপ্লেক্স মার্কেটের ৬৫% শেয়ার হিসেবে ৫৬৫টি দোকান আমি মালিকানাধীন। এলাকার কিছু সন্ত্রাসী বাহিনী আমার দোকানগুলি অবৈধ ভাবে দখল করে রেখেছিলেন। থানায় অভিযোগ ও ঢাকা জজকোর্টে মামলা করার কারণে ১২ বছর কোন ঝামেলা ছাড়াই আমাকে মার্কেট বুঝিয়ে দেন।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি
Design & Developed BY SheraWeb.Com